Home / কাপাসিয়া / কাপাসিয়ায় সাংবাদিক রোজিনার মুক্তি ও হেনস্তাকারীদের শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান

কাপাসিয়ায় সাংবাদিক রোজিনার মুক্তি ও হেনস্তাকারীদের শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান

অধ্যাপক শামসুল হুদা লিটনঃ দৈনিক প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রোজিনা ইসলামকে হেনস্তা ও বৃটিশ আইনে গ্রেফতারের প্রতিবাদে গাজীপুরের কাপাসিয়ায় মানববন্ধন, প্রতিবাদ সভা, র‌্যালি, দুর্নীতির বিরুদ্ধে শপথ ও উপজেলা নিবার্হী অফিসারের (ইউএনও) মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়েছে। ২১ মে শুক্রবার বেলা সোয়া ১১টায় উপজেলা পরিষদের সামনে কাপাসিয়ায় কর্মরত প্রিন্ট, ইলেকট্রনিক ও অনলাইন গণমাধ্যমে কর্মরত সাংবাদিকরা ওই প্রতিবাদ কর্মসূচীতে অংশ নেয়। এ ছাড়াও কাপাসিয়া সংস্কৃতি পরিষদ, সুজন, মানবাধিকার সংগঠন ও শিক্ষক নেতৃবৃন্দ সাংবাদিকদের মানববন্ধন ও প্রতিবাদ কর্মসূচীতে অংশ গ্রহণ করেন।

কাপাসিয়া উপজেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক শামসুল হুদা লিটনের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন সিনিয়র সাংবাদিক সঞ্জিব কুমার দাস, সাইফুল ইসলাম শাহীন, এফ এম কামাল হোসেন, নূরুল আমিন সিকদার, মোঃ মজিবুর রহমান, শেখ সফিউদ্দিন জিন্নাহ, আঃ কাইয়ুম, মোঃ আকরাম হোসেন রিপন, কাপাসিয়া ডিগ্রি কলেজের বাংলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মোঃ সাইফুল ইসলাম, কাপাসিয়া সেন্ট্রাল কলেজের পরিচালক ইকবাল হায়দার সবুজ, শিক্ষক নেতা আশরাফ খান প্রমুখ। কর্মসূচীতে অনুসন্ধানী সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে হেনস্তার নিন্দা জানিয়ে বক্তারা বলেন, অনুসন্ধানী সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে নিঃশর্ত মুক্তি দিতে হবে। তিনি চোর হলে দেশের সব সাংবাদিক চোর। রোজিনা ইসলাম দুর্নীতিবাজদের জন্য আতঙ্ক। তিনি সাম্প্রতিক সময়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও সরকারের গুরুত্বপূর্ণ দফতরের বিরুদ্ধে ধারাবাহিক প্রতিবেদন করেছেন। প্রতিবেদন প্রকাশের পর কোনও দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। আমরা মনে করি, দুর্নীতিবাজদের প্রশ্রয় দিয়ে সরকার দেশকে আমলাতান্ত্রিক রাষ্ট্রে পরিণত করেছে।

আমলারা জনগণের কামলা। এই কামলাদের রাজত্বের কারণে রাষ্ট্রের চতুর্থ স্তম্ব গণমাধ্যম দিনকে দিন অকেজো হয়ে পড়ছে।বক্তারা মনে করেন, নিজেদের অপকর্ম ঢাকতেই স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা পরিকল্পিতভাবে সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে ৬ ঘণ্টার বেশি সময় আটকে রেখে নির্যাতন করেছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের একজন উচ্চপদস্ত নারী রোজিনার গলা চেপে ধরেছে, তাকেসহ সকল হেনস্তাকারীদের বিচারের আওতায় আনতে হবে। একই সঙ্গে তাদের চাকরী থেকে অব্যাহতি প্রদান করতে হবে। সাংবাদিক রোজিনা ইসলাম সরকারের চোখে আঙুল দিয়ে দুর্নীতির চিত্র দেখিয়ে দিয়েছেন। তবুও দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নিয়ে উল্টো তাকেই জেলে পাঠানো হলো। এ ঘটনায় জাতির বিবেক সাংবাদিকরাসহ সর্বস্তরের মানুষ আজ স্তম্ভিত বিস্মিত ও আতংকিত। তদন্ত কমিটি প্রসঙ্গে বক্তারা বলেন, কোনও ঘটনা ঘটার পর প্রশাসনকে প্রথমে খুব সোচ্ছার হতে দেখি। তদন্ত কমিটি করতে দেখি। কিন্তু তদন্ত কমিটির নামে জনগণকে বোকা বানানো হয়। দেশের মানুষকে শান্ত করে প্রতিবারই দেখি ঘটনাকে ধামাচাপা দেওয়া হয়। আমরা সাংবাদিক রোজিনাকে হেনস্তার ঘটনায় এমন তদন্ত দেখতে চাই না। আমরা ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও দোষীদের শাস্তি চাই। এ জন্য তদন্ত কমিটিতে অবশ্যই সাংবাদিক প্রতিনিধি রাখতে হবে। যারা সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে ছয় ঘণ্টার বেশী সময় আটকে নির্যাতন করেছে তাদের হাতে তদন্ত কখনো স্বচ্ছ হতে পারে না।

কাপাসিয়ার সাংবাদিকরা হুশিয়ারী দিয়ে আরও বলেন, আমরা আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। রোববারের মধ্যে রোজিনা ইসলামকে মুক্তি না দিলে আমরা কঠোর কর্মসূচী দিতে বাধ্য হবো। রোজিনাকে মুক্তি ও গণমাধ্যমকে রক্ষা করতে আমরা স্বেচ্ছায় কারাবরণে প্রস্তুত রয়েছি। স্বাধীনতার ৫০ বছর পরও বৃটিশ আইনে সাংবাদিক নির্যাতনের ঘটনায় পুরো বিশ্ববিবেক জেগে উঠেছে। এই আইন সাংবাদিকদের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য নয়। এটি করা হয়েছে সরকারি কর্মকর্তা, কর্মচারীদের জন্য। অপেশাদার কর্মকর্তাদের জন্য বিশ্বের চোখে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি চরমভাবে ক্ষুন্ন হয়েছে। এ জন্য রাষ্ট্রদ্রোহীতার অপরাধে সাংবাদিককে নয়, বরং ওই কর্মকর্তাদের অনতিবিলম্বে বিচারের মুখোমুখি করতে হবে। কর্মসূচীতে কাপাসিয়ায় কর্মরত অর্ধশতাধিক সাংবাদিক, সুশীল সমাজসহ সর্বস্তরের মানুষ অংশ নেয়।

About admin

Check Also

সনমানিয়ায় আলফাজ উদ্দিন ফাউন্ডেশনের উদ্বোধন

গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলার চর-সনমানিয়ার চরআলীনগর আলফাজ উদ্দিন মোক্তার ফাউন্ডেশন নামের অলাভজনক, অরাজনৈতিক ও জনকল্যাণমূলক প্রতিষ্ঠানটি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com